Smart News - шаблон joomla Создание сайтов
  • Font size:
  • Decrease
  • Reset
  • Increase

হারিয়ে যাচ্ছে গোপালভোগ!‌

"জামাইষষ্ঠীতে ঝোড়ো ইনিংস খেলল মালদার গোপালভোগ। জামাইরা বুধবার চেটেপুটে স্বাদ নিলেন ঐতিহ্যবাহী আমটির। আজও সমান অটুট তার গরিমা। এবার বিদায়ের হাতছানি। দু’–‌চারদিনের মধ্যেই টা–‌‌টা জানাবে সে। এখন হাতে সময় একেবারেই নেই বললেই চলে। আম–‌‌রসিকরা এখনও যাঁরা গোপালভোগের স্বাদ নেননি, অবিলম্বে বাজার থেকে নিয়ে যান প্রিয় আমটি। জেলা উদ্যানপালন দপ্তরের উপ–‌অধিকর্তা রাহুল চক্রবর্তী জানান, জেলায় মোট উৎপাদনের শতকরা ৫ ভাগ গোপালভোগ। আমের মরশুমটা শুরু হয় গোপালভোগ দিয়ে। যেহেতু উৎপাদন কম, খুব তাড়াতাড়ি শেষও হয়ে যায় আমটি। সাধারণত জামাইষষ্ঠীর সপ্তাহখানেক আগে থেকে আম পাড়া শুরু হয়। ষষ্ঠীর পর ৫–‌‌৬ দিনের মধ্যে বিদায় নিয়ে থাকে গোপালভোগ। এখন হাতে মাত্র আর কয়েক‌টা দিন। গোপালভোগ জেলাবাসীর সবচেয়ে প্রিয়। তাহলে উৎপাদন এত কম কেন?‌ স্বাদে, গন্ধে এত জনপ্রিয়তার পরেও চাষীরা উৎসাহ দেখাচ্ছেন না কেন?‌ কেনই–‌বা আমের উৎপাদন বাড়ানোর ব্যাপারে নতুন করে ভাবা হচ্ছে না?‌ তাহলে কি কিছুদিন পর ইতিহাসের পাতায় দেখা যাবে জনপ্রিয় আমটি?‌ চাষীদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেল, এই আমের ফলনটা অন্যান্য আমের থেকে তুলনামূলক কম। গাছ মাঝেমধ্যেই বিশ্বাসঘাতকতা করে থাকে। অন্যান্য গাছে যেখানে দেদার মুকুল, তখন হয়ত গোপালভোগের গাছে মুকুলের দেখা নেই। এ ছাড়া আম হলেও গাছেই নষ্ট হয়ে যায় বেশ কিছু। চাষীরা এই গাছকে বাগে আনতে একরকম ব্যর্থ। অনেকে সে‌জন্যই গোপালভোগকে প্রতারক বলে থাকে। জেলায় যে অল্পসংখ্যক গাছ আছে, চাষীরা সেই গাছের আম নিজেদের খাওয়ার জন্যই রাখে বেশিরভাগ। কিছু আম বাজারে আসে। দামও আকাশছোঁয়া। বুধবারও বিক্রি হয়েছে কেজি প্রতি ৫০ টাকার ওপর। এখন যা সমস্যা তাতে কি গোপালভোগ আস্তে আস্তে হারিয়ে যাচ্ছে‌‌‌!‌ চাষীরা জানাচ্ছেন, যে–‌সব গাছ আছে সেগুলি অনেক পুরনো। বেশি বয়সের। নতুন করে আর কেউ গাছ লাগাতে চাইছেন না। আবার পুরনো বলে স্বাভাবিকভাবে ফলনও কম। পাশাপাশি চাষীদের এখন চাহিদা হিমসাগর, আম্রপালি, লক্ষ্মণভোগের দিকে। বেশি বেশি ফলন, তাই। চাষীরা বেশি লাভ করে থাকেন এই সব আমে। স্বাভাবিকভাবেই চাষীদের কাছে চাহিদাও বেশি। যদিও এখনও দিন পনেরো লাগবে আম্রপালি বাজারে আসতে। তার পর লক্ষ্মণভোগ, হিমসাগর। কিন্তু কিছু ভিনজেলার আম মালদার আম্রপালি, লক্ষ্মণভোগ বলে চালানো হচ্ছে বাজারে। কিছু অসাধু ব্যবসায়ীর চক্করে পড়ে ঠকছেন জেলার সাধারণ মানুষ। ভুল আমের স্বাদ নিয়ে ফেলছেন তাঁরা। সচেতন হওয়া উচিত  তাঁদের।

Leave your comments

0
terms and condition.
  • No comments found
চাঁপাইনবাবগঞ্জের বিখ্যাত ‘খিরসাপাত’ জাতের আম জিআই’ (ভৌগোলিক নির্দেশক) পণ্য হিসেবে নিবন্ধিত হতে যাচ্ছে। এ ব্যাপারে গেজেট জারি প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। নিবন্ধন পেলে সুস্বাদু জাতের এই আম ‘চাঁপাইনবাবগঞ্জের খিরসাপাত আম’ নামে বাংলাদেশসহ বিশ্ব বাজারে পরিচিতি লাভ করবে।  এই আমের ...
আম ছাড়া মধুমাস যেন চিনি ছাড়া মিষ্টি। বছর ঘুরে এই আমের জন্য অপেক্ষায় থাকে সবাই। রসালো এ ফলের জন্য অবশ্য অপেক্ষার পালা এবার শেষ হয়েছে। রাজশাহী ও চাঁপাইনবাবগঞ্জে বুধবার থেকে শুরু হয়েছে আম পাড়া। এর আগে প্রশাসনের নিষেধাজ্ঞার কারণে আমের রাজধানীতে এতদিন আম পাড়া বন্ধ ছিল। তাইতো ...
আমাদের দেশে উৎপাদিত মোট আমের ২০ থেকে ৩০ শতাংশ সংগ্রহোত্তর পর্যায়ে নষ্ট হয়। প্রধানত বোঁটা পচা ও অ্যানথ্রাকনোজ রোগের কারণে আম নষ্ট হয়। আম সংগ্রহকালীন ভাঙা বা কাটা বোঁটা থেকে কষ বেরিয়ে ফলত্বকে দৃষ্টিকটু দাগ পড়ে । ফলত্বকে নানা রকম রোগজীবাণুও লেগে থাকতে পারে এবং লেগে থাকা কষ ...
বাংলাদেশে উৎপাদিত ফল ও সবজির রপ্তানির সম্ভাবনা অনেক। তবে সম্ভাবনার তুলতায় সফলতা যে খুব যে বেশি তা বলার অপেক্ষা রাখে না। রপ্তানি সংশ্লিষ্ঠ ব্যাক্তিবর্গ অনিয়মতান্ত্রিকভাবে বিভিন্নভাবে তাদের প্রচেষ্ঠা অব্যহত রেখেছেন। কিন্তু এদের সুনির্দিষ্ট কোন কর্ম পরিকল্পনা নেই বললেই চলে। ...
মৌসুমি ফল দিয়ে কর্তা ব্যক্তিদের খুশি করে স্বার্থ উদ্ধারের পদ্ধতি অনেক দিনের। বর্তমানে এই খুশি বিষয়টি আদায় করতে নগদ অর্থ খরচ করতে হলেও ফল থেরাপি ধরে রেখেছে অনেকেই। এর একটি হল মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তর। মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তরের কর্মকর্তাদের জন্য নিয়মিত ...
নব্য জেএমবির বিভিন্ন সদস্যকে গ্রেপ্তার এবং সর্বশেষ সংগঠনের প্রধান আব্দুর রহমানের কাছ থেকে বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ নথিপত্র সংগ্রহ করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)। প্রায় ১৯টির মতো সাংগঠনিক চিঠিও উদ্ধার করা হয়েছে। এর মধ্যে ৯টি চিঠি পাঠিয়েছেন নিহত আব্দুর রহমান ওরফে ...

MangoNews24.Com

আমাদের সাথেই থাকুন

facebook ফেসবৃক

টৃইটার

Rssআর এস এস

E-mail ইমেইল করুন

phone+৮৮০১৭৮১৩৪৩২৭২