Smart News - шаблон joomla Создание сайтов
  • Font size:
  • Decrease
  • Reset
  • Increase

৬০ হাজার মেট্রিক টন আম ক্রয় করবে প্রাণ

চলতি মৌসুমে ৬০ হাজার মেট্রিক টন আম ক্রয় করার লক্ষ্যমাত্রা নিয়ে আম সংগ্রহ ও পাল্পিং কার্যক্রম শুরু করেছে দেশের সর্ববৃহৎ কৃষিপণ্য প্রক্রিয়াজাতকারী প্রতিষ্ঠান প্রাণ এগ্রো লিমিটেড। যার বাজার মূল্য প্রায় ১২০ কোটি টাকা।

 

গত ১৯ মে থেকে শুরু হওয়া এ কার্যক্রম চলবে আমের সরবরাহ থাকা পর্যন্ত বলে জানিয়েছে প্রাণ এগ্রো লিমিটেড। দেশের বিভিন্ন অঞ্চলের প্রায় ১৫ হাজার চুক্তিবদ্ধ আম চাষির কাছ থেকে এসব আম ক্রয় করা হচ্ছে।

 

বৃহস্পতিবার দুপুরে নাটোর সদর উপজেলার একডালায় প্রাণ এগ্রো লিমিটেডের কারখানায় স্থানীয় সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময় কালে কারখানার ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার হযরত আলী এসব কথা বলেন।

 

তিনি বলেন, নাটোরে প্রাণ এর কৃষি ভিত্তিক শিল্প কারখানা গড়ে ওঠার কারণে কারখানায় সরাসরি প্রায় ৭ হাজার লোকের কর্মসংস্থান হয়েছে। আমের মৌসুমে বাড়তি আরো দুই থেকে তিন হাজার শ্রমিকের কর্মসংস্থান সৃষ্টি হয়। এসব শ্রমিকের প্রায় ৯০ ভাগ নারী। এছাড়া কারখানায় আম সংগ্রহের সময়ের পরোক্ষ ভাবে আরো অনেকের কর্মসংস্থান সৃষ্টি হয়।

 

তিনি আরো বলেন, কারখানাতে আম প্রবেশের সময় কোয়ালিটি কন্ট্রোলার দ্বারা আম বিভিন্ন পরীক্ষা নিরিক্ষা পর তা গ্রহণ করা হয়। এক বছরের জন্য পাল্প নিরাপদ, তাজা ও স্বাদ ধরে রাখতে আমগুলো ফ্যাক্টরীতে বিভিন্ন প্রক্রিয়ার মাধ্যমে ক্রাসিং করে পাল্প সংগ্রহ করে তা অ্যাসেপটিক প্রযুক্তিতে সংরক্ষন করা হয়।

 

হযরত আলী আরো বলেন, এই পাল্প থেকে প্রাণের বিভিন্ন ম্যাংগো, ড্রিংকস, ম্যাংগো বার ও জেলিসহ বিভিন্ন খাদ্য সামগ্রী তৈরি করা হয়। এছাড়া এই কাঁচা আম থেকে বিভিন্ন ধরনের আচার তৈরি করা হয়। প্রাণের এসব পণ্য এখন বিশ্বের ১৩৪ টি দেশে নিয়মিতভাবে রপ্তানি হচ্ছে।

 

মতবিনিময় সভায় প্রাণ এগ্রো বিজনেস লিমিটেডের কন্ট্রাক্ট ফার্মিং বিভাগের সিনিয়র ম্যানেজার কামরুজ্জামান বলেন, নাটোর, রাজশাহী, চাপাইনবাবগঞ্জ, নওগাঁ, দিনাজপুর এবং সাতক্ষীরায় প্রাণের প্রায় ১৫ হাজার চুক্তিবদ্ধ আম চাষির কাছ থেকে আম সংগ্রহ করা হয়।

 

তিনি আরো বলেন, প্রাণের কৃষি হাবের মাধ্যমে এসব আম চাষিদের বিভিন্ন ভাবে সহযোগিতা করা হয়। স্বল্প মূল্যে উন্নত জাতের চারা প্রদান, সার, কীটনাশক ব্যবহার, রোপন প্রক্রিয়া ও গাছ থেকে আম সংগ্রহ সম্পর্কে তাদের প্রশিক্ষণ দেয়া হয়।

 

মতবিনিময় সভায় সিনিয়র ম্যানেজার (অ্যাডমিন) আব্দুল কাদের সরকার, হেড অব মিডিয়া সুজন মাহমুদ, জিএম পিআর জিয়াউল হক, কারখানার অ্যাসিসটেন্ট জেনারেল ম্যানেজার (মার্কেটিং) কেএম জিয়াউল হক জিয়া প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

Leave your comments

0
terms and condition.
  • No comments found
জৈষ্ঠ্য মাসের প্রথম সপ্তাহে জেলার হিমসাগর আম গেল ইউরোপে। আর এর মধ্য দিয়েই আম রপ্তানিতে কৃষি বিভাগের প্রচেষ্টা তৃতীয়বারের মতো সাফল্যের মুখ দেখলো। সোমবার রাতে রপ্তানির প্রথম চালানেই জেলার দেবহাটা উপজেলার ছয়জন চাষী ও সদর উপজেলার তিনজন চাষীর বাগানের হিমসাগর আম পাঠানো হলো ...
দিনাজপুরের নবাবগঞ্জ থেকে চলতি মৌসুমে আম বিদেশে রপ্তানির লক্ষ্যে উপজেলার মাহমুদপুর ফলচাষী সমবায় সমিতি লিমিটেডের বাগানিরা আম বাগানের নিবিড় পরিচর্যা শুরু করেছে । উপজেলা কৃষি অধিপ্তরের সহায়তায় বিষ মুক্ত ও রপ্তানীযোগ্য আম উৎপাদনের জন্য তারা সেক্স ফেরোমন ফাঁদ ও ফ্রুট ব্যাগিং ...
বাজারে আম সহ মাছ, ফল, সবজিসহ বিভিন্ন খাদ্য সংরক্ষণে যখন হরহামেশাই ব্যবহার হচ্ছে মানবদেহের জন্য মারাত্মক ক্ষতিকর রাসায়নিক উপাদান ফরমালিন, ঠিক তখনই এর বিকল্প আবিষ্কার করেছেন বাংলাদেশের বিজ্ঞানী ড. মোবারক আহম্মদ খান। বাংলাদেশ পরমাণু শক্তি কমিশনের প্রধান এই বৈজ্ঞানিক ...
বাংলাদেশে উৎপাদিত ফল ও সবজির রপ্তানির সম্ভাবনা অনেক। তবে সম্ভাবনার তুলতায় সফলতা যে খুব যে বেশি তা বলার অপেক্ষা রাখে না। রপ্তানি সংশ্লিষ্ঠ ব্যাক্তিবর্গ অনিয়মতান্ত্রিকভাবে বিভিন্নভাবে তাদের প্রচেষ্ঠা অব্যহত রেখেছেন। কিন্তু এদের সুনির্দিষ্ট কোন কর্ম পরিকল্পনা নেই বললেই চলে। ...
দীর্ঘ অপেক্ষার অবসান ঘটিয়ে এবার আম সাম্রাজ্য চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা রফতানি পণ্যের তালিকায় উঠে আসার এক মাসের মধ্যেই পৃথিবীর বিভিন্ন দেশের আম ব্যবসায়ীরা খুবই আগ্রহী হয়ে উঠেছে এখানকার আম তাদের দেশে নিয়ে যাবার ব্যাপারে। যদিও ইতোপূর্বে এ বছর চাঁপাইনবাবগঞ্জ থেকে দুই হাজার টন আম ...
রীষ্মের এই দিনে অনেকেরই পছন্দ আম।এই আমের আছে আবার বিভিন্ন ধরণের নাম।কত রকমের যে আম আছে এই যেমনঃ ল্যাংড়া,ফজলি,গুটি আম,হিমসাগর,গোপালভোগ,মোহনভোগ,ক্ষীরশাপাত, কাঁচামিঠা কালীভোগ আরও কত কি! কিন্তু এবারে বাজারে এসেছে এক নতুন নামের আর তার নাম 'বঙ্গবন্ধু'। নতুন নামের এই ফলটি দেখা ...

MangoNews24.Com

আমাদের সাথেই থাকুন

facebook ফেসবৃক

টৃইটার

Rssআর এস এস

E-mail ইমেইল করুন

phone+৮৮০১৭৮১৩৪৩২৭২