Smart News - шаблон joomla Создание сайтов
  • Font size:
  • Decrease
  • Reset
  • Increase

আমে ফরমালিন নিরোধ অভিযান শতভাগ ভুল ছিল

০১৪ ও ২০১৫ সালে ফরমালিন বিরোধী অভিযানের নামে লাখ লাখ টন আম নষ্ট করা হয়েছিল। এতে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছিলেন হাজারও ব্যবসায়ী ও কৃষক। কিন্তু সেই অভিযান শতভাগ ভুল ছিল বলে গবেষণায় প্রমাণ হয়েছে।

বুধবার রাজধানীর মতিঝিলে ঢাকা চেম্বারে আয়োজিত সেমিনারে এ তথ্য জানান বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ও আম গবেষক ড. এমএ রহিম।

ঢাকা চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি (ডিসিসিআই) এবং ইউএসএআইডির এগ্রিকালচারাল ভ্যালু চেইনস প্রজেক্ট (এভিসি) যৌথভাবে আয়োজিত নিরাপদ আম বিপণনে নীতিনির্ধারণী পরিবেশ শীর্ষক আলোচনা সভায় প্রবন্ধ উপস্থাপনকালে এ তথ্য জানানো হয়।

ড. এমএ রহিম প্রবন্ধে বলেন, ফরমালিন স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর, তবে সুখের বিষয় গবেষণায় দেখা গেছে আমে কোনো ফরমালিন ব্যবহার করা হয় না।

তিনি বলেন, সব ফলেই প্রাকৃতিকভাবে কিছু পরিমাণ (১-৬০ পিপিএম) ফরমালিন থাকে। আমেও প্রাকৃতিকভাবে (১,২২-৩.০৮ পিপিএম) ফরমালিন থাকে। কিন্তু প্রচলিত ফরমালিন যন্ত্রে এর ভুল বোঝাবুঝি সৃষ্টি হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, পূর্বেও আমে ফরমালিন মেশানো হয়নি এখনও হয় না, আশা করছি আগামীতেও হবে না।

অধ্যাপক রহিম বলেন, দেশে আম দ্রুত পাকানোর জন্য ইথেফেন ব্যবহার করা হয়। আম পাকানোর ক্ষেত্রে ২০০-১০০০ পিপিএম মাত্রায় ইথেফেন ব্যবহার নিরাপদ। এছাড়া গবেষণায় দেখা গেছে, আম দ্রুত পাকানো ও আগাম বিক্রির জন্য ক্যালসিয়াম কার্বাইড ব্যবহার হয়। তবে এটি বেশিরভাগই বিদেশ থেকে আমদানি করা আমে দেখা গেছে।

গবেষণা প্রতিবেদনে বলা হয়, বাংলাদেশ বিশ্বের সপ্তম বৃহত্তম আম উৎপাদনকারী দেশ। বার্ষিক প্রায় ১০ লাখ মেট্রিক টন আম উৎপাদন হয়। যার আর্থিক বাজারমূল্য ৮ হাজার কোটি টাকা।

আলোচনা সভায় উপস্থিত বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মুন্সি শফিউল হকের কাছে আমে ফরমালিন সংক্রান্ত ভুল অভিযানের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, জনমনে আতঙ্ক কাটাতে ওই সময়ে অভিযান চালানো হয়েছিল। হাইকোর্টের নির্দেশে তা বন্ধ রয়েছে। তবে এখন ফলে ফরমালিনের উপস্থিতি নেই বলেও দাবি করেন তিনি।

আলোচনা সভায় বিভিন্ন ব্যবসায়ী ও গবেষকরা খাদ্যে ভেজাল নেই এমন নিশ্চিয়তা প্রদানের জন্য সরকারের পক্ষ থেকে আলাদা একটি সংস্থা গঠনের প্রস্তাব দেন।

সভায় উপস্থিত ছিলেন ঢাকা চেম্বারের সাবেক সহ-সভাপতি মো. শোয়েব চৌধুরী, ঢাকা চেম্বারের পরিচালক ইমরান আহমেদ, বাংলাদেশে সুপার মার্কেট মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মো. জাকির হোসেনসহ কৃষিবিদ ও এ খাতসংশ্লিষ্টরা উপস্থিত ছিলেন।

Leave your comments

0
terms and condition.
  • No comments found
চাঁপাইনবাবগঞ্জের বিখ্যাত ‘খিরসাপাত’ জাতের আম জিআই’ (ভৌগোলিক নির্দেশক) পণ্য হিসেবে নিবন্ধিত হতে যাচ্ছে। এ ব্যাপারে গেজেট জারি প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। নিবন্ধন পেলে সুস্বাদু জাতের এই আম ‘চাঁপাইনবাবগঞ্জের খিরসাপাত আম’ নামে বাংলাদেশসহ বিশ্ব বাজারে পরিচিতি লাভ করবে।  এই আমের ...
মধূ মাসে বাজারে উঠেছে পাকা আম। জেলা শহর থেকে ৬০ কি.মি দুরের প্রত্যন্ত ভোলাহাট উপজেলার স্থানীয় বাজারে ফরমালিন মুক্ত গাছপাকা আম এখন চড়া দামে বিক্রয় হচ্ছে। মালদহ সীমান্তবর্তী বিশাল আমবাগান ঘেরা এই উপজেলায় বেশ কিছু জায়গা ঘুরে বাজারগুলোতে শুধু গাছপাকা আম পেড়ে বিক্রয় করতে দেখা ...
আমের মৌসুম বাড়ছে আরও এক মাস  কোনো রাসায়নিক দ্রব্য ব্যবহার না করে আম পাকা প্রায় এক মাস বিলম্বিত করার প্রযুক্তি উদ্ভাবন করেছেন এক উদ্ভিদবিজ্ঞানী আম পাকা শুরু হলে আর ধরে রাখা যায় না। তখন বাজারে আমের সরবরাহ বেড়ে যায়। যেকোনো দামেই বেচে দিতে হয়। তাতে কোনো কোনো বছর চাষির উৎপাদন ...
আম রফতানির মাধ্যমে চাষিদের মুনাফা নিশ্চিত করার উদ্যোগ নিচ্ছে সরকার। এজন্য দেশে বাণিজ্যিকভাবে আমের উৎপাদন, কেমিক্যালমুক্ত পরিচর্যা এবং রফতানি বাড়াতে সরকার বিশেষ পদক্ষেপ নিতে যাচ্ছে। সে লক্ষ্যে গাছে মুকুল আসা থেকে শুরু করে ফল পরিপক্বতা অর্জন, আহরণ, গুদামজাত, পরিবহন এবং ...
গাছ ফল দেবে, ছায়া দেবে; আরও দেবে নির্মল বাতাস। আশ্রয় নেবে পাখপাখালি, কাঠ বেড়ালি, হরেক রকম গিরগিটি। গাছ থেকে উপকার পাবে মানুষ, পশুপাখি, কীটপতঙ্গ– সবাই। আর এতেই আমি খুশি। ঐতিহাসিক মুজিবনগর আম্রকাননে ছোট ছোট আমগাছের গোড়া পরিচর্যা করার সময় এ কথাগুলো বলেন বৃক্ষ প্রেমিক জহির ...
ইসলামপুরের গাইবান্ধা ইউনিয়নের আগুনেরচরে একটি আম গাছের গোড়া থেকে গজিয়ে উঠেছে হাতসদৃশ মসজাতীয় উদ্ভিদ বা ছত্রাক। ওই ছত্রাককে অলৌকিক হাতের উত্থান এবং ওই হাত ভেজানো পানি খেলে যেকোন রোগ ভাল হয় বলে অপপ্রচার করছে স্থানীয় ভ- চক্র। আর ওই ভ-ামির ফাঁদে পা দিয়ে প্রতিদিন প্রতারিত হচ্ছেন ...

MangoNews24.Com

আমাদের সাথেই থাকুন

facebook ফেসবৃক

টৃইটার

Rssআর এস এস

E-mail ইমেইল করুন

phone+৮৮০১৭৮১৩৪৩২৭২