Smart News - шаблон joomla Создание сайтов
  • Font size:
  • Decrease
  • Reset
  • Increase

বিদেশীদের আগ্রহ বাড়ছে চাঁপাইয়ের আমে

দীর্ঘ অপেক্ষার অবসান ঘটিয়ে এবার আম সাম্রাজ্য চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা রফতানি পণ্যের তালিকায় উঠে আসার এক মাসের মধ্যেই পৃথিবীর বিভিন্ন দেশের আম ব্যবসায়ীরা খুবই আগ্রহী হয়ে উঠেছে এখানকার আম তাদের দেশে নিয়ে যাবার ব্যাপারে। যদিও ইতোপূর্বে এ বছর চাঁপাইনবাবগঞ্জ থেকে দুই হাজার টন আম রফতানির লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হলেও তা এখন বেড়ে প্রায় দ্বিগুণের বেশি, পাঁচ হাজার টনে উন্নীত হতে যাচ্ছে বলে সংশ্লিষ্ট বিভাগ নিশ্চিত করেছে। জুনের প্রথম সপ্তাহে ও মধুমাস জ্যৈষ্ঠের তৃতীয় সপ্তাহে তিনটি রফতানিকারক প্রতিষ্ঠান প্রথম চালান ৮৫ টাকা কেজি দরে তিন (৩) টনের কাছাকাছি আম ইউরোপের দেশসমূহে পাঠানোর মধ্য দিয়ে এক ধরনের কর্মচাঞ্চল্যতা দেখা দেয় স্থানীয় আম ব্যবসায়ী ও বাগান মালিকদের মধ্যে। একই ভাবে দ্বিতীয় চালান পাঠাবার প্রস্তুতি নিয়ে এ মাসের দ্বিতীয় সপ্তাহে ছয় টন আম পাঠানো হয় ইংল্যান্ডে।

 

লি এন্টারপ্রাইজ, কেটিএস এন্টারপ্রাইজ ও মরিশন এন্টারপ্রাইজ অতি দক্ষতার সঙ্গে প্যাকেটজাত করে জার্মানি ও ইংল্যান্ডে পাঠানো হয়েছে। প্রথম চালানে এখানকার ক্ষিরসা পাতের (হিম সাগর) আধিক্য অধিক পরিমাণে থাকলেও দ্বিতীয় চালানে পাঠানো হয়েছে খুবই উৎকৃষ্ট মানের ল্যাংড়া। এর মধ্যে গাজীপুর ল্যাংড়াও রয়েছে।

চাঁপাইনবাবগঞ্জের আম প্রথম ও দ্বিতীয়বার উন্নত মোড়ক জারের মাধ্যমে রফতানির জন্য দেশের সীমানা ছাড়িয়ে জায়গা করে নিয়েছে বিশ্ব বাজারে। ভারতসহ বিভিন্ন দেশ দীর্ঘ সময় ধরে বিদেশের বাজারে আম রফতানি করলেও এবারই প্রথম প্রতিদ্বন্দী হিসাবে পাশে মিলেছে বাংলাদেশকে। বিশেষ করে শিবগঞ্জ অঞ্চরের আম বিদেশের বাজারে অতি আধুনিক প্রতিযোগিতায় স্থান করে নেবার পর বিদেশীদের নজর পড়েছে চাঁপাইয়ের ভোলাহাট অঞ্চলের প্রতি। কারণ ভোলাহাট ভারতের শ্রেষ্ঠ আম উৎপাদনকারী এলাকা মালদহের একেবারে কাছাকাছি। মালদহ সদর, ইংরেজ বাজারসহ তাদের ৮টি বড় ধরনের আম উৎপাদনকারী এলাকা হতে ভোলাহাটের দূরত্ব অনেক ক্ষেত্রেই ঢিল ছোড়া দূরত্বসহ প্রায় ৩৫ মিনিটের পথ। তাই বিদেশের আম ব্যবসায়ীরা ইতোমধ্যেই টার্গেট করেছে ভারতীয় আম বাজারকে টেক্কা দিতে ভোলাহাটের সঙ্গে যোগাযোগ রক্ষা। কারণ ভোলাহাটের আম ভারতীয় উৎপাদিত আমের সমকক্ষ। তাই বিদেশের বাজারে বাংলাদেশের আম পৌঁছা মাত্র টার্গেট করে ভোলাহাটের আম নিয়ে যাবে। দামেও কম ও মানের দিক দিয়েও সমকক্ষ হবার কারণে এবার বিদেশী আম ব্যবসায়ীদের নজর পড়েছে ভোলাহাটের ওপর। বিদেশীরা কৌশল হিসাবে প্রথম চটে বেছে নেন ভোলাহাটে একটি সেমিনার করার। এই অঞ্চলের সব চেয়ে বড় প্রতিষ্ঠান ভোলাহাট আম ফাউন্ডেশনের সঙ্গে যোগাযোগ করে তড়িঘড়ি আয়োজিত সেমিনারে প্রধান অতিথি করে নিয়ে আসেন ইউনিভার্সিটি অব ফিলি পাইন লসরেনোমের প্রফেসর এন্তাকে। জেলার বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের কৃষি বিজ্ঞানী কৃষিবিদ, ফাও প্রতিনিধি ড. সামিম আহম্মেদ চৌধুরী, ড. জিল্লুর রহমানসহ শতাধিক বিশিষ্ট ব্যক্তিদের নিয়ে সেমিনার করে বিভিন্ন উপকরণ তুলে দেন ১৩ আম চাষী ও ১০ জন আম ব্যবসায়ীর হাতে। এসব উপকরণের মধ্যে রয়েছে গরম পানিতে আম শোধন মেশিন (হটওয়ার ট্রিটমেন্ট প্লান্ট), ১০টি আম পাড়ার ঠুসি, ২০টি ক্যারেট ও বাগান থেকে আম পরিবহনের জন্য ১টি ভ্যান প্রদান করা হয়। বৈজ্ঞানিক পদ্ধতিতে আম উৎপাদন, আম পাড়া, গরম পানিতে আম শোধন এবং সঠিক পদ্ধতিতে পরিবহনের মাধ্যমে চাঁপাইনবাবগঞ্জ, ভোলাহাট থেকে বিদেশে আম রফতানির লক্ষ্যে ভোলাহাট আম ফাউন্ডেশনকে এসব উপকরণ দেয়া হয়। বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা, জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষি সংস্থার আঞ্চলিক অফিস এশিয়া এন্ড দি প্যাসিফিকের যৌথ উদ্যোগে এ প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছে।

Leave your comments

0
terms and condition.
  • No comments found
জৈষ্ঠ্য মাসের প্রথম সপ্তাহে জেলার হিমসাগর আম গেল ইউরোপে। আর এর মধ্য দিয়েই আম রপ্তানিতে কৃষি বিভাগের প্রচেষ্টা তৃতীয়বারের মতো সাফল্যের মুখ দেখলো। সোমবার রাতে রপ্তানির প্রথম চালানেই জেলার দেবহাটা উপজেলার ছয়জন চাষী ও সদর উপজেলার তিনজন চাষীর বাগানের হিমসাগর আম পাঠানো হলো ...
মধূ মাসে বাজারে উঠেছে পাকা আম। জেলা শহর থেকে ৬০ কি.মি দুরের প্রত্যন্ত ভোলাহাট উপজেলার স্থানীয় বাজারে ফরমালিন মুক্ত গাছপাকা আম এখন চড়া দামে বিক্রয় হচ্ছে। মালদহ সীমান্তবর্তী বিশাল আমবাগান ঘেরা এই উপজেলায় বেশ কিছু জায়গা ঘুরে বাজারগুলোতে শুধু গাছপাকা আম পেড়ে বিক্রয় করতে দেখা ...
চাঁপাইনবাবগঞ্জের আমবাগানগুলোতে আমের ‘মাছিপোকা’ দমনে কীটনাশক ব্যবহার না করে সেক্স ফেরোমেন ফাঁদ ব্যবহার শুরু হয়েছে। পরিবেশবান্ধব এই ফাঁদকে কোথাও কোথাও ‘জাদুর ফাঁদ’ও বলা হয়ে থাকে। দু-তিন দিকে কাটা-ফাঁকা স্থান দিয়ে মাছিপোকা ঢুকতে পারে, এমন একটি প্লাস্টিকের কনটেইনার বা বোতলের ...
আম রফতানির মাধ্যমে চাষিদের মুনাফা নিশ্চিত করার উদ্যোগ নিচ্ছে সরকার। এজন্য দেশে বাণিজ্যিকভাবে আমের উৎপাদন, কেমিক্যালমুক্ত পরিচর্যা এবং রফতানি বাড়াতে সরকার বিশেষ পদক্ষেপ নিতে যাচ্ছে। সে লক্ষ্যে গাছে মুকুল আসা থেকে শুরু করে ফল পরিপক্বতা অর্জন, আহরণ, গুদামজাত, পরিবহন এবং ...
দীর্ঘ অপেক্ষার অবসান ঘটিয়ে এবার আম সাম্রাজ্য চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা রফতানি পণ্যের তালিকায় উঠে আসার এক মাসের মধ্যেই পৃথিবীর বিভিন্ন দেশের আম ব্যবসায়ীরা খুবই আগ্রহী হয়ে উঠেছে এখানকার আম তাদের দেশে নিয়ে যাবার ব্যাপারে। যদিও ইতোপূর্বে এ বছর চাঁপাইনবাবগঞ্জ থেকে দুই হাজার টন আম ...
আম গাছ কে দেশের জাতীয় গাছ হিসেবে ঘোষনা দাওয়া হয়েছে। আর এরই প্রতিবাদে কিছুদিন আগে এক সম্মেলন হয়ে গেলো যেখানে বলা হয়েছে :-"৮৫% মমিন মুসলমানের দেশ বাংলাদেশ। ঈমান আকিদায় দুইন্নার কুন দেশেরথে পিছায় আছি?? আপনেরাই বলেন। অথচ জালিম সরকার ভারতের লগে ষড়যন্ত কইরা আমাগো ঈমানের লুঙ্গি ...

MangoNews24.Com

আমাদের সাথেই থাকুন

facebook ফেসবৃক

টৃইটার

Rssআর এস এস

E-mail ইমেইল করুন

phone+৮৮০১৭৮১৩৪৩২৭২